অলিম্পিক গেমস ২০২০: গ্রীষ্মকালীন টোকিও অলিম্পিকের আদ্যপান্ত

অলিম্পিক গেমস (Olympic Games) বিশ্বের সর্ববৃহৎ এবং সর্বোচ্চ সম্মানজনক প্রতিযোগিতা। প্রতি চার বছর পর পর অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে এই অলিম্পিক গেমস। আর এরই ধারাবাহিকতায় ২০১৬ সালের ব্রাজিলের রিও অলিম্পিকের পর জাপানের রাজধানী টোকিওতে হবে ৩২ তম গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিক গেমস ২০২০ যা টোকিও অলিম্পিক ২০২০ (Tokyo Olympic, 2020) নামেও পরিচিত (এর দুটো প্রকরন; গ্রীষ্মকালীন এবং শীতকালীন)। এবারের এই টোকিও অলিম্পিক গেমস শুরু হবে ৪ জুলাই এবং শেষ হবে ৯ আগস্ট, ২০২০। টোকিও এর আগে ১৯৬৪ সালেও গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিক গেমস আয়োজন করেছিল। আর ২০২০ সালের অলিম্পিক গেমসের কারনে টোকিও হবে বিশ্বের পঞ্চম শহর (এশিয়ার প্রথম) যারা দ্বিতীয়বার খেলার এই মহাযজ্ঞ আয়োজন করা সুযোগ পেয়েছে।

টোকিও যেভাবে অলিম্পিকের জন্য নির্বাচিত হল

২০১৩ সালের ৭ সেপ্টেম্বর, আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি কর্তৃক ঘোষণা করা হয় যে আজপানের রাজধানী টোকিওতেই হবে ২০২০ সালের গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিক গেমস। আর এই স্বাগতিক হওয়ার দৌড়ে টোকিও পেছনে ফেলে তুরস্কের ইস্তানবুল এবং স্পেনের মাদ্রিদকে। ফাইনালে টোকিও, ইস্তানবুলকে ৬০-৩৬ পয়েন্টে পরাজিত করে। আর মাদ্রিদ, ইস্তানবুলের সাথে টাইব্রেকারে হেরে প্রথম রাউন্ডেই বাদ পরে।

টোকিও যেভাবে অলিম্পিকের জন্য নির্বাচিত হল
টোকিও যেভাবে অলিম্পিকের জন্য নির্বাচিত হল

অলিম্পিক গেমস ২০২০ এর লোগো

অলিম্পিক গেমস ২০২০ এর-লোগো
অলিম্পিক গেমস ২০২০ এর-লোগো

চেকার্ড বা ছককাটা প্যাটার্ন বিশ্বজুড়ে অনেক দেশেই জনপ্রিয়। আর অলিম্পিক গেমস ২০২০ এর লোগোতেও এই চেকার্ড বা ছককাটা প্যাটার্ন এ ব্যবহার করা হয়েছে। যাতে রয়েছে জাপানে ঐতিহ্যগত আকাশি নীল রং। তিন ধরণের আয়তক্ষেত্রাকার আকার দিয়ে গঠিত, নকশাটি বিভিন্ন দেশ, সংস্কৃতি এবং চিন্তাভাবনার উপস্থাপন করে।

অলিম্পিক গেমস ২০২০ এর মাসকট

অলিম্পিক গেমস ২০২০ এর মাসকট মিরাইতোয়া
অলিম্পিক গেমস ২০২০ এর মাসকট মিরাইতোয়া

অলিম্পিক গেমস ২০২০ এর মাসকট হল মিরাইতোয়া (Miraitowa)। যা জাপানি শব্দ মিরাই (ভবিষ্যত) এবং তোয়া (চিরকালীন) থেকে উদ্ভূত। বিশ্বজুড়ে মানুষের হৃদয়ে অনন্ত আশাপূর্ণ ভবিষ্যতের প্রচারের জন্যই এই নামটি বেছে নেওয়া হয়েছিল।

অলিম্পিক গেমস ২০২০ এর মেডেল

অলিম্পিক গেমস ২০২০ এর মেডেল
অলিম্পিক গেমস ২০২০ এর মেডেল

দেশব্যাপী উন্মুক্ত প্রতিযোগিতার পরে বিজয়ী ডিজাইনগুলি নির্বাচিত করা হয়েছিল। যেখানে অংশগ্রহন করেছিল পেশাদার ডিজাইনার থেকে শুরু করে শিক্ষার্থীরাও। মেডেল নির্বাচনের জন্য একটি বিশেষভাবে বাছাই প্যানেলেও নির্ধারণ করা হয়। এই বিশেষ প্যানেলের পক্ষেও ৪০০ টিরও বেশি ডিজাইন থেকে নির্বাচিত ডিজাইনটি বাছাই করা খুবই কঠিন কাজ ছিল। আর এই নির্বাচিত ডিজাইনটি উপস্থাপন করেছেন জাপান সাইন ডিজাইন অ্যাসোসিয়েশন এবং ওসাকা ডিজাইন সোসাইটির পরিচালক জুনিচি কাওনিশি।

অলিম্পিক গেমস ২০২০ এর মশাল

অলিম্পিক গেমস ২০২০ এর মশাল
অলিম্পিক গেমস ২০২০ এর মশাল

এই টোকিও অলিম্পিক গেমস ২০২০ এর অলিম্পিক মশাল জাপানি সংস্কৃতির বেশ কয়েকটি উপাদানকে অন্তর্ভুক্ত করেছে এবং মশাল দৌড়ের স্লোগানকেও জোরদার করে। স্লোগান: “আশা আমাদের পথকে আলোকিত করে”।

অলিম্পিক গেমস ২০২০ এর খেলাসমূহ

রিও অলিম্পিক গেমস এর পর জাপানের অলিম্পিক আসরে নতুন করে আরও পাঁচটি ইভেন্ট যোগ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইন্টারন্যাশনাল অলিম্পিক কমিটি (আইওসি)। নতুন এ ইভেন্টগুলোতে থাকছে বেসবল, কারাতে, স্কেটবোর্ড, স্পোর্ট ক্লাইম্বিং এবং সার্ফিং। অলিম্পিক গেমস ২০২০ এর সকল খেলাসমূহ হল:

অলিম্পিক গেমস ২০২০ এর খেলাসমূহ
অলিম্পিক গেমস ২০২০ এর খেলাসমূহ

অলিম্পিক গেমস ২০২০ এর স্টেডিয়ামসমূহ

নতুন জাতীয় স্টেডিয়াম, টোকিও
নতুন জাতীয় স্টেডিয়াম, টোকিও

অলিম্পিক গেমস ২০২০ এর ইভেন্টগুলো মোট ৩৩টি স্টেডিয়ামে হবে। যারমধ্যে ফুটবল খেলা হবে ৭টি তে এবং ফাইনাল হবে ইউকোহামা ইন্টারন্যাশনাল স্টেডিয়ামে। স্টেডিয়ামের মধ্যে উল্লেখযোগ্য আরো কিছু স্টেডিয়াম হল টোকিও জাতীয় স্টেডিয়াম, সাইতামা স্টেডিয়াম, মিয়াগি স্টেডিয়াম, টোকিও আজিনোমতো স্টেডিয়াম, ইবারাকিরকাসিমা সক্কার স্টেডিয়াম ও সাপ্পোরো ডমে স্টেডিয়াম ইত্যাদি।

অলিম্পিক গেমস ২০২০ এর অলিম্পিক ভিলেজ

অলিম্পিক গেমস ২০২০ এর অলিম্পিক ভিলেজ
অলিম্পিক গেমস ২০২০ এর অলিম্পিক ভিলেজ

সত্যি অসাধারণ এক লোকেশনে তৈরি হচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে বিলাসবহুল অলিম্পিক ভিলেজ। সাগরের পাড় কিছুটা ভরাট করে বিশাল জায়গাজুড়ে টোকিও সিটির সবচেয়ে দর্শনীয় ও আন্তর্জাতিক হোটেল-মোটেল সমৃদ্ধ স্থান ওদায়বার হারুমি চো-কোতে গড়ে তোলা হচ্ছে অত্যাধুনিক বিলাসবহুল এ অলিম্পিক ভিলেজ।

কী নেই এ ভিলেজে! পাঁচতারকা হোটেলের সব সুবিধা থাকবে খেলোয়াড়দের আবাসিক এ ভিলেজে। এখানে থাকবে প্রায় ৭ হাজারের বেশি ইউনিট। আর পাশেই রয়েছে অপরূপ সৌন্দর্যমণ্ডিত হারুমিফোতো পার্ক ও সমুদ্র সৈকত।

যেসব প্রযুক্তি থাকছে অলিম্পিক গেমস ২০২০ এ

অলিম্পিক গেমস ২০২০ এর অর্থনৈতিক মূল্য তিন ট্রিলিয়ন ইয়েনের বেশি। আর প্রযুক্তিপ্রিয় দেশের অলিম্পিকে যে অত্যাধুনিক বিভিন্ন প্রযুক্তির ছোঁয়া থাকবে এতো বোঝাই যায়।

এই অলিম্পিকের সবচেয়ে বড় চমক হচ্ছে এইটকে (8K) প্রযুক্তি। হাইব্রিড ব্রডকাস্ট সিস্টেম ব্যবহার করে অলিম্পিক গেমস ২০২০ সরাসরি সম্প্রচার করা হবে। বিগ সাইট ইন্টারন্যাশনাল ব্রডকাস্ট সেন্টার থেকে সারা পৃথিবীতে এ খেলা সম্প্রচারের আয়োজন করা হচ্ছে। প্রতিটি খেলার স্কোর ও বিস্তারিত তথ্য স্পষ্টভাবে স্ক্রিনে দেখানো হবে। আর তাই প্রতিটি ইভেন্টেই সর্বনিম্ন ৩২ মেগাপিক্সেল ক্ষমতা সম্পন্ন ক্যামেরা ব্যবহার করা হবে। আর ক্যামেরাটিও অনেক বেশি সংবেদনশীল। থাকবে সাইন-ল্যাংগুয়েজেরও ব্যবস্থাও।


data-matched-content-rows-num="2" data-matched-content-columns-num="2"

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *