টপ ৫: রাশিয়া বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্বের যে ম্যাচগুলো অবশ্যই দেখা উচিৎ

আর মাত্র কয়েকদিন পরেই মাঠে গড়াচ্ছে দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ – বিশ্বকাপ ফুটবল। প্রতিবারের মত এবারও ৩২ টি দল ৮ টি গ্রুপে ভাগ হয়ে গেছে। বিশ্বকাপের ফিক্সচারও বোধহয় এতক্ষনে দেখা হয়ে গেছে। আর এই বিশ্বকাপ ফিক্সচার নিশ্চিত হবার পর থেকেই গ্রুপ পর্বের কিছু ম্যাচ নিয়ে শুরু হয়ে গেছে ফুটবল ভক্তদের ক্ষণগননা। এই ম্যাচগুলো নিশ্চিতভাবেই উত্তাপ ছড়াবে চায়ের টংগুলোতে, বন্ধু-বান্ধবদের আড্ডায়, খবরের কাগজে। আর এমনি ৫ টি উত্তাপ ছড়ানো ম্যাচ নিয়েই আমাদের আজকের আয়োজন।

গ্রুপ পরবের যে ৫ ম্যাচ অবশ্যই দেখা উচিৎ

আর্জেন্টিনা বনাম আইসল্যান্ড

আর্জেন্টিনা বনাম আইসল্যান্ড

আর্জেন্টিনা বনাম আইসল্যান্ড

১৬ জুন ২০১৮, শনিবার (সন্ধ্যা ৭টা)

আপাতদৃষ্টিতে ম্যাচটিকে সহজ মনে হলেও ফুটবলবোদ্ধাদের মতে আর্জেন্টিনার জন্য ম্যাচটি মোটেই সহজ হবে না। কি বলেন? কোথায় আর্জেন্টিনা এবারের অন্যতম ফেবারিট আর কোথায় আইসল্যান্ড? যারা নিজেদের ইতিহাসেই প্রথমবারের মত বিশ্বকাপ খেলছে। আসলে আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপের ফেবারিট হলেও, আইসল্যান্ড এবার রাশিয়া বিশ্বকাপের অন্যতম ডার্কহর্স। গত ইউরোতে তারা কোয়ার্টার ফাইনালে খেলেছিলো। যেখানে তারা গ্রুপপর্বে সেই আসরের ইউরো চ্যাম্পিয়ন পর্তুগালকে ১-১ গোলে রুখে দেয় এবং ২য় পর্বে ইংল্যান্ডকে হারায় ২-১ গোলে। প্রথমবারের মত বিশ্বকাপ খেলায় দলটিও বেশ উজ্জীবিত। এছাড়া তাদের কাঁপুন ধরানো জলদস্যু উদযাপন তো আছেই!

অপরদিকে আর্জেন্টিনা যদিও মেসির নেতৃত্বে অন্যতম শক্তিশালী দল তবুও তারা কিছুদিন আগেই স্পেনের কাছে ৬-০ গোলে হেরেছে। আর গ্রুপটাও খুব কঠিন। কেননা সাথে আছে ক্রোয়েশিয়া এবং নাইজেরিয়ার মত শক্তিশালী দল। তাই এই আর্জেন্টিনা – আইসল্যান্ড ম্যাচে অঘটন ঘটেও যেতে পারে!

আরো পড়ুন:  টপ ৫: রাশিয়া বিশ্বকাপে শিরোপা জয়ের সবচেয়ে ফেবারিট ৫ দল

জার্মানি বনাম মেক্সিকো

জার্মানি বনাম মেক্সিকো

জার্মানি বনাম মেক্সিকো

১৭ জুন ২০১৮, রবিবার (রাত ৯টা)

জার্মানি, ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন এবং এবার রাশিয়া বিশ্বকাপের অন্যতম শিরোপাপ্রত্যাশী দল। তাদের স্কোয়াডও খুবই ভারসাম্যপূর্ণ। প্রতিটি পজিশনেই অন্যতম সেরা দল। অন্যদিকে মেক্সিকো সবসময়ই বিশ্বকাপে সমীহ জাগানিয়া দল। দলে আছে হাভিয়ের চিচারিতো হার্নান্দেজ, জিওভান্নি ডস সান্তোসদের মত খেলোয়াড়। আর গোলবারে আছেন গতবার ব্রাজিলকে গোলশূন্য ড্র করানো গিলের্মো ওচোয়া।

এই গ্রুপের প্রতিটি দলই একে অপরকে টক্কর দেওয়ার ক্ষমতা রাখে। গ্রুপে অন্য দুই দল হল সুইডেন এবং দক্ষিণ কোরিয়া। তাই জার্মানি খুব সতর্কতার সাথেই ম্যাচটি নিবে। কিন্তু ম্যাচটি যে ফুটবলপ্রেমীদের কাছে উত্তাপ ছরাবে এ বিষয়ে কোন সন্দেহ নেই।

আরো পড়ুন:  রাশিয়া ফুটবল বিশ্বকাপ ২০১৮ ফিক্সচার (বাংলাদেশ সময় অনুযায়ী)

আর্জেন্টিনা বনাম ক্রোয়েশিয়া

আর্জেন্টিনা বনাম ক্রোয়েশিয়া

আর্জেন্টিনা বনাম ক্রোয়েশিয়া

২১ জুন ২০১৮, বৃহস্পতিবার (রাত ১২টা)

ক্রোয়েশিয়া দলটি শক্তি এবং ইতিহাসের বিচারে হয়তো আর্জেন্টিনার থেকে অনেক পিছিয়ে। তবে যে দলের মিডফিল্ডে লুকা মদ্রিচ, ইভান রাকিটিচ, মাতেও কোভাচিচ এবং আক্রমণভাগে মারিও মারিও মানজুকিচদের মত প্লেয়ার থাকে তারা যে মেসি – আগুয়েরোদের আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে দিতে পারে সে বিষয়ে কোন সন্দেহ নেই।

আসলে এই গ্রুপের প্রতিটি ম্যাচই দেখার মত। কেননা ক্রোয়েশিয়া, নাইজেরিয়া এবং আইসল্যান্ড – সবগুলো দলই মাঝারি মানের সমশক্তির দল। তাই শুধুমাত্র আর্জেন্টিনা বনাম আইসল্যান্ড বা আর্জেন্টিনা বনাম ক্রোয়েশিয়া নয় এই গ্রুপের প্রতিটি ম্যাচই আপনার অবশ্যই দেখা উচিৎ।

ইংল্যান্ড বনাম বেলজিয়াম

ইংল্যান্ড বনাম বেলজিয়াম

ইংল্যান্ড বনাম বেলজিয়াম

২৮ জুন ২০১৮, বৃহস্পতিবার (রাত ১২টা)

এবারের বিশ্বকাপের শক্তিশালী দুই দল। ইংল্যান্ড এবং বেলজিয়াম দুটো দলই যেন তারকায় ঠাঁসা। ইংল্যান্ড দলে আছে আরনল্ড, গ্যারি কাহিল, কাইল ওয়াকার, জন স্টোনস, ফিল জোনস, অ্যাশলি ইয়াং, এরিক ডায়ার, ডেলে আলি, জেসি লিনগার্ড, হ্যারি কেন, মার্কাস রাশফোর্ড, রাহিম স্টার্লিং, জেমি ভার্ডি, ড্যানি ওয়েলবেকদের মত প্লেয়ার যার সারা বছর জুড়ে প্রিমিয়ার লিগ মাতিয়েছেন।

আবার বেলজিয়াম দলেও আছে থিবো কর্তোয়া, ভিনসেন্ট কোম্পানি, জর্ডান লুকাকু, থমাস ভারমালেন, কেবিন ডি ব্রুইন, মার্লন ফেলাইনি, ইডেন হ্যাজার্ড, রোমেলু লুকাকুরা যারা নিয়মিত ইউরোপের বিভিন্ন লিগে খেলে যাচ্ছেন। তার তারকায় ঠাঁসা এই দুই দলের ম্যাচ দেখা যে সময় নষ্ট করা হবে না তাতো আর বলতে হবে না!

আরো পড়ুন:  টপ ৫: রাশিয়া বিশ্বকাপে যে ৫ জন সর্বোচ্চ গোল স্কোরার হতে পারে

পর্তুগাল বনাম স্পেন

পর্তুগাল বনাম স্পেন

পর্তুগাল বনাম স্পেন

১৫ জুন ২০১৮, শুক্রবার (রাত ১২টা)

এই ম্যাচটি এবারের রাশিয়া বিশ্বকাপের গ্রুপপর্বের সবচেয়ে আকর্ষণীয় ম্যাচ। দুই দলের মধ্যে একদল ২০১০ সালের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন এবং এবারের বিশ্বকাপের তুমুল ফেবারিট – স্পেন। আর আরেক দল গত ইউরো কাপেরই চ্যাম্পিয়ন দল – পর্তুগাল। আর পর্তুগালের হয়ে মাঠে থাকবেন ৫ বারের বিশ্বসেরা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। তার সাথে থাকবে ন্যানি, পেপে, বার্নার্ডো সিলভা, মৌতিনহোরা।

আর অপর দিকে? অপরদিকে থাকবে এবার বিশ্বকাপের সবচেয়ে শক্তিশালী মিডফিল্ড – সার্জিও বুসকেটস, সল নিগুয়েজ, থিয়াগো আলকানতারা, আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা, কোকে, ডেভিড সিলভা, ইসকো। অন্যতম শক্তিশালী ডিফেন্স – দানি কারভাহাল, জেরার্ড পিকে, সার্জিও রামোস, নাচো ফার্নান্দেজ, জর্ডি আলবা, নাচো মনরিয়েল। আক্রমণভাগে অভিজ্ঞ ডিয়েগো কস্তার সাথে মার্কো এসেনসিও, লুকাস ভাসকেজ, ইয়াগো আসপাস। এবং গোলবারের প্রহরী হিসেবে এ সময়ের অন্যতম সেরা গোলকিপার ডেভিড ডি গিয়া।

এই ম্যাচে নিঃসন্দেহে স্পেনই ফেবারিট। শিরোপা পুনরুদ্ধারের মিশনে পর্তুগালকে উড়িয়ে দিয়েই টুর্নামেন্ট শুরু করতে চাইবে তারা। তবে পর্তুগালকে ওয়ান ম্যান আর্মি বলা হলেও দল হিসেবে তারা কতোটুকু পরিণত তার প্রমাণ তারা গত ইউরো কাপেই দেখিয়েছে। এছাড়া স্পেনের সাথে কিছু পুরনো হিসাব কিতাবও তো বাকী আছে পর্তুগীজদের। কেননা এই স্পেনের কাছে হেরেই ২০১০ বিশ্বকাপের দ্বিতীয় পর্ব থেকে এবং ২০১২ ইউরোর সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নিয়েছিলো তারা। তাই প্রতিশোধ নেয়ার জন্য বিশ্বকাপের মঞ্চের থেকে ভালো আর কিই বা হতে পারে? তাই এটি যে এবারের বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বের সবচেয়ে কাঙ্ক্ষিত এবং আকর্ষণীয় ম্যাচ তা নিশ্চয়ই আর বলতে হবে না।

গ্রুপ পর্বের আরো কিছু গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ

আর্জেন্টিনা বনাম নাইজেরিয়া, ফ্রাস বনাম অস্ট্রেলিয়া, ব্রাজিল বনাম সুইজারল্যান্ড, উরুগুয়ে বনাম মিশর, পোল্যান্ড বনাম কলোম্বিয়া।

data-matched-content-rows-num="2" data-matched-content-columns-num="2"

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *