টপ ৫: কিভাবে প্রাকৃতিক উপায়ে ইঁদুর দমন করবেন

আমাদের নিত্যদিনের স্বাভাবিক জীবনে একটি আতঙ্ক ও উপদ্রবের নাম ইঁদুর। এরা বাড়িতে বিভিন্ন প্রকার রোগের জীবাণু ছড়ায়! এসব রোগজীবাণু বয়ে বেড়ানো ছাড়াও এরা বাড়িতে খাবারদাবার নষ্ট করে। আর দরকারি কাগজ-পত্র ও শখের পোশাক কাটাকাটিতেও এরা ওস্তাদ। ছোট্ট এই প্রাণীটি আবার দ্রুত বংশবৃদ্ধিতেও পারঙ্গম! একটি স্ত্রী ইঁদুর বছরে চারবারে কমপক্ষে ১২টি বাচ্চার জন্ম দেয়! তাই প্রাকৃতিক উপায়ে ইঁদুর দমন খুবই কঠিন একটি বিষয়।

প্রাকৃতিক উপায়ে ইঁদুর দমন

ইঁদুরের হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার উপায়টি অত সহজ নয়। আর এক্ষেত্রে ইঁদুরের বিষ ইঁদুর মারার অন্যতম কার্যকর একটি পদ্ধতি। তবে অনেকের ঘরে শিশু বা অন্যান্য পোষা প্রাণী থাকে বলে বিষ দেওয়াও নিরাপদ নয়। আর তাই চলুন জেনে নেই কিভাবে প্রাকৃতিক উপায়ে ইঁদুর দমন করবেন।

  1. গোলমরিচের ব্যবহার

    প্রাকৃতিক উপায়ে ইঁদুর দমনের একটি কার্যকরী উপায় হলো গোলমরিচ। গোলমরিচের তীব্র গন্ধ ইঁদুর একেবারেই সহ্য করতে পারে না। এর ঝাঁঝালো ঘ্রাণ ইঁদুরের ফুসফুসে গেলে নিশ্বাস নিতে পারে না ইঁদুর। তাই যে সকল স্থানে ইঁদুরের উপদ্রব বেশি বা ইঁদুরের আবাস রয়েছে মনে করছেন, সেসব স্থানে গোলমরিচের গুঁড়া ছিটিয়ে রাখুন।গোলমরিচের ব্যবহার

  2. মেন্থল বা পিপারমিন্ট অয়েলের ব্যবহার

    মেন্থল বা পিপারমিন্ট অয়েল ইঁদুর দমনের অন্যতম একটি উপাদান। এর ঝাঁঝালো গন্ধ ইঁদুরেরা সহ্য করতে পারে না। তাই কয়েক ফোটা মেন্থল বা পিপারমিন্ট অয়েল তুলায় দিয়ে যে সকল স্থানে ইঁদুরের উপদ্রব বেশি বা ইঁদুরের আবাস রয়েছে মনে করছেন, সেসব স্থানে দিয়ে রাখুন। তবে যদি ঘরে পিপারমিন্ট অয়েল না থাকে তাহলে, পুদিনা পাতা ছেঁচে অলিভ অয়েল বা কাস্টর অয়েলে দিয়ে ফুটিয়ে নিন এবং ঠান্ডা করে ব্যবহার করতে পারেন। কিংবা বাড়ির আশেপাশে পুদিনা গাছও চাষ করতে পারেন।মেন্থল বা পিপারমিন্ট অয়েলের ব্যবহার

  3. পেঁয়াজের ব্যবহার

    পেঁয়াজও প্রাকৃতিক উপায়ে ইঁদুরের দমনের অন্যতম একটি উপায়। পেঁয়াজের গন্ধ এরা সহ্য করতে পারে না। আবার এরা পেঁয়াজ হজমও করতে পারে না। কিন্তু স্বভাববশত কামড় দেয় পেঁয়াজে। ফলে সেই পেঁয়াজ হজম না করতে পারার কারনে মারা যায় ইঁদুর। তাই ইঁদুর যেখানে রয়েছে বলে মনে করছেন বা ইদুরের গর্তের সামনে, পেঁয়াজ টুকরো রেখে দিলে ইঁদুর পালাবে বা মরে যাবে।পেঁয়াজের ব্যবহার

  4. তেজপাতার ব্যবহার

    ইঁদুরের দমনের অন্যতম আরেকটি প্রাকৃতিক উপায় হলো তেজপাতার ব্যবহার। তেজপাতা খাওয়ার পর ইঁদুরেরা এটি একেবারেই হজম করতে পারে না। আর এ কারণে খুব সহজেই মারা পড়ে। তাই যে সকল স্থানে ইঁদুরের উপদ্রব বেশি বা ইঁদুরের আবাস রয়েছে মনে করছেন, সেসব স্থানে আস্ত তেজপাতা বা তেজপাতা গুঁড়ো করে ছড়িয়ে রাখুন।তেজপাতার ব্যবহার

  5. গরুর গোবরের ব্যবহার

    দুর্গন্ধযুক্ত প্রক্রিয়া হলেও গরুর গোবর ইঁদুর তাড়ানোর খুব ভালো একটি পদ্ধতি। ইঁদুরেরা গরুর গোবর খেলে তা তাদের পাকস্থলীতে অত্যাধিক তাপ উৎপন্ন করে। যার ফলে এরা মারা যায়। তাই ইঁদুর দমনে যেসব স্থানে ইঁদুর আছে বলে মনে করেন সেখানে কিছুটা গরুর গোবর রেখে দিতে পারেন। আশাকরি ভালো কাজে দিবে।গরুর গোবরের ব্যবহার

এছাড়া ইঁদুর দমনের অন্যতম আরেকটি প্রাকৃতির উপায় হল বিড়াল বা কুকুর পোষা। কারন গবেষণায় দেখা গেছে, যে বাড়িতে বিড়াল কিংবা কুকুর থাকে সে বাড়িতে ইঁদুরের উৎপাত কম হয়।

data-matched-content-rows-num="2" data-matched-content-columns-num="2"

1 Response

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *