টপ ৫: বিশ্বের সবচেয়ে বড় দেশ

পৃথিবীতে ১৯৪টি দেশেরও অধিক দেশ রয়েছে। সোভিয়েত ইউনিয়ন এর মত অনেক বড় বড় দেশ ভেঙ্গে ছোট হয়েছে। আবার বর্তমান জার্মানির মত অনেক দেশ, একাধিক দেশ থেকে এক দেশে পরিনত হয়েছে। এসব দেশগুলোর মধ্যে কিছু দেশ যেমন খুবই ছোট, আবার তেমনি কিছু দেশ খুবই বড়। আর এসব ছোট-বড় থেকে সবচেয়ে বড় ৫টি দেশ নিয়েই আমাদের আজকের আয়োজন “টপ ৫: পৃথিবীর সবচেয়ে বড় দেশ”:

বিশ্বের সবচেয়ে বড় দেশ

৫. ব্রাজিল

ব্রাজিল
ব্রাজিল

ব্রাজিল, দক্ষিন আমেরিকা মহাদেশের সবচেয়ে বড় দেশ। সাধারণত ব্রাজিলকে আমরা ফুটবলের দেশ হিসেবেই চিনি। তবে দেশটি তার নিজস্ব সংস্কৃতি এবং বিশাল অর্থনীতির জন্যও পরিচিত। ব্রাজিলের আয়তন প্রায় ৮.৫১৫ মিলিয়ন বর্গ কি.মি.। ব্রাজিলের প্রধান ভাষা হল পর্তুগিজ এবং এটিই বিশ্বের সর্ববৃহৎ পর্তুগিজভাষী দেশ।

ব্রাজিলে পূর্বভাগ আটলান্টিক মহাসাগর দ্বারা বেষ্টিত। যার উপকূলীয়ভাগের দৈর্ঘ্য প্রায় ৭,৪৯১ কিমি (৪,৬৫৫ মাইল)। ব্রাজিলের বর্ডার দশটি দেশের সাথে সংযুক্ত। যারমধ্যে  উত্তরে রয়েছে ভেনেজুয়েলা, গায়ানা, সুরিনাম, ও ফরাসি গায়ানা। উত্তর-পশ্চিমভাগে কলম্বিয়া; পশ্চিমে বলিভিয়া ও পেরু; দক্ষিণ-পশ্চিমে আর্জেন্টিনা ও প্যারাগুয়ে, এবং সর্ব-দক্ষিণে দক্ষিণে উরুগুয়ে অবস্থিত। আর বিশ্বের সবচেয়ে বড় রেইনফরেস্ট আমাজন বনের সবচেয়ে বড় অংশও এই ব্রাজিলেই।

৪. আমেরিকা

আমেরিকা
আমেরিকা

বিশ্বের ৪র্থ বৃহত্তম দেশ হলো আমেরিকা বা যুক্তরাষ্ট্র। এর আয়তন প্রায় ৯.৫২৫ মিলিয়ন বর্গ কি.মি.। আমেরিকার বর্ডার দক্ষিণে মেক্সিকো ও উত্তরে কানাডার সাথে সংযুক্ত আছে এবং দেশটির পূর্বে আটলান্টিক মহাসাগর এবং পশ্চিমে রয়েছে প্রশান্ত মহাসাগর। আমেরিকার ভৌগলিক অবস্থা ও জীববৈচিত্র খুবই বিচিত্র। দেশটির পশ্চিমাংশে আছে রকি মাউন্টেইন। রকি পর্বতমালা এবং মিসিসিপি নদীর মাঝে আছে বিশাল সমভূমি যা কানাডা থেকে মেক্সিকো পর্যন্ত বিস্তৃত।

আর এই সমভূমিই আমেরিকার অন্যতম উর্বর জমি। এছাড়া আছে গ্রান্ড ক্যানিয়নডেথ ভ্যালি‘র মত অন্যান্য বড় বড় অঞ্চল।

৩. চীন

চীন
চীন

চীন বিশ্বের ৩য় বৃহত্তম দেশ। এটি বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ শক্তি এবং এশিয়া মহাদেশের একটি প্রধান আঞ্চলিক শক্তি।। এর আয়তন প্রায় ৯.৫৯৬ মিলিয়ন বর্গ কি.মি.। চীনের বর্ডার ১৪ টি দেশের সাথে সংযুক্ত যার মধ্যে পূর্বে আফগানিস্তান, উত্তরে রাশিয়া এবং দক্ষিনে ভিয়েতনাম। চীনের ভৌগলিক অবসবথা খুবই বৈচিত্র্যময়। যেমন: উত্তরে আছে খুবই শীতল অঞ্চল আর মাঝে রয়েছে পৃথিবীর ৪র্থ বৃহৎ মরুভূমি, গোবি মরুভূমি এবং দক্ষিনের অঞ্চলেও প্রায়ই গ্রীষ্মকালীন গরম দেখা যায়।

চীনের জনসংখ্যা প্রায় ১.৪২৭ বিলিয়ন। আর ক্রয়ক্ষমতার সমতার (Purchasing power parity) বিচারে চীনের অর্থনীতি বিশ্বের ২য় বৃহত্তম। এদেশের জিডিপি (GDP) ৮.১৮৫ ট্রিলিয়ন আমেরিকান ডলার।

২. কানাডা

কানাডা
কানাডা

সবচেয়ে বড় দেশসমূহের ২য় স্থানে আছে কানাডা। এটি উত্তর আমেরিকার উত্তরাংশে অবস্থিত এবং দেশটি একাই উত্তর আমেরিকা মহাদেশের প্রায় ৪১% স্থান দখল করেছে। এটি আটলান্টিক থেকে প্যাসিফিক এবং উত্তরে আর্কটিক সমুদ্র পর্যন্ত বিস্তৃত। কানাডার আয়তন প্রায় ৯.৯৮৪ মিলিয়ন বর্গ কি.মি.। যার ২০২,০৮০ কি.মি. সমুদ্রতট। কানাডার জনসংখ্যা প্রায় ৩৭.৬০২ মিলিয়ন হলেও প্রতি বর্গ কিলোমিটারে জনসংখ্যা ঘনত্ব মাত্র ৩.৮৭ জন।

১. রাশিয়া

রাশিয়া
রাশিয়া

বিশ্বের সবচেয়ে বড় দেশ রাশিয়া। পৃথিবীর মোট ভূখণ্ডের এক-অষ্টমাংশ তাদের দখলে। উত্তর এশিয়া ও পূর্ব ইউরোপের বিশাল অংশজুড়ে রাশিয়ার অবস্থান। এর আয়তন প্রায় ১৭.০৯৮ মিলিয়ন বর্গ কি.মি.। চীনের মত রাশিয়ার বর্ডারও ১৪ টি দেশের সাথে সংযুক্ত। দেশটি খনিজ সম্পদে পরিপূর্ণ।

তবে দেশটির তেল এবং অন্যান্য খনিজ সম্পদগুলো অবস্থিত এর বরফজমাট বনাঞ্চল এবং তুন্দ্রার নিচে। আর উত্তোলন খরচ বেশি হওয়ায় এসব খনিজ সম্পদগুলো এখনো সংরক্ষিতই আছে। সারাবছরই হিমশীতল এবং শৈত্যপূর্ণ অবস্থা থাকার কারনে দেশটি বিশ্বের শীতলতম দেশ হিসেবে পরিচিত। আর তাই, দেশটির হাড়কাঁপানি ঠাণ্ডা কারনে এখানে থাকাটা খুবই কষ্টকর।

পোস্টটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ। পোস্টটি আপনাদের ভালো লাগলে কমেন্ট এবং শেয়ার করতে কার্পণ্য করবেন না। আপনাদের কমেন্ট এবং শেয়ার আমাদেরকে আরো বেশি লিখতে অনুপ্রেরণা যোগায়।



error: