ওকাপি পরিচিতি: ওকাপি সম্পর্কে জানা অজানা বিভিন্ন তথ্য

“ওকাপি! এটা আবার কোন প্রাণী?”। ধরা যাক, আপনি কঙ্গোর গহীন কোন জঙ্গলে ঘুরতে গেলেন এবং হটাৎ দেখলেন জেব্রার মতো এক কিম্ভুতাকার প্রাণী। কিন্তু একটু ভালোকরে দেখার পর বুঝলেন, আরে! এতো জেব্রা নয়, জেব্রার সাইজেই জেব্রা আর জিরাফের মিশ্রণে তৈরি এক কিম্ভুতাকার প্রাণী। হ্যাঁ, এটাই ওকাপি। যদিও এদেরকে অনেক সময় ফরেস্ট জিরাফ নামে ডাকা হয়, তবে এদেরকে দেখতে তেমন একটা জিরাফের মত মনে হয় না। জেব্রা বা ঘোড়ার সাইজে হলেও প্রজাতিগতভাবে এরা জিরাফের সমগোত্রীয় প্রাণী। ওকাপি কঙ্গোর জাতীয় পশু।

ওকাপির আকার ও আকৃতি

ওকাপির আকার ও আকৃতি
ওকাপির আকার ও আকৃতি

আগেই বলা হয়েছে ওকাপি (Okapi) দেখতে জেব্রার সাইজেই জেব্রা আর জিরাফের মিশ্রণে তৈরি এক কিম্ভুতাকার প্রাণী। পাগুলো জেব্রার মতো সাদা-কালো ডোরাকাটা। আর দেহের বাকি অংশের রঙ চকলেট বাদামী।

ওকাপি লম্বায় অনেকটা ঘোড়ার মত; প্রায় ৫ ফুট (১.৫ মিটার)। এদের জিহ্বাও তুলনামূলক বড় (জিরাফের মত)। পুরুষ ওকাপির মাথায় দুটি ছোট শিং আছে যা ত্বক দিয়ে আচ্ছাদিত। এদের মধ্যে সাধারণত পুরুষ ওকাপির তুলনায় স্ত্রী ওকাপির ওজন একটু বেশি হয়। পুরুষের ওজন যেখানে ৪৪০ থেকে ৬৬০ পাউন্ড (২০০ থেকে ৩০০ কেজি); সেখানে স্ত্রী ওকাপিদের ওজন ৪৯৫ থেকে ৭৭০ পাউন্ড (২২৫ থেকে ৩৫০ কিলোগ্রাম)।

ওকাপির আবাস্থল

ওকাপির আবাস্থল
ওকাপির আবাস্থল

আফ্রিকান রেনফরেস্টে, যেখানে বন একটু গভীর সেখানে এই অদ্ভুত প্রাণী ওকাপিদের পাওয়া যায়। Rainforest Alliance এর মতে এরা কঙ্গো গণতান্ত্রিক প্রজাতন্ত্রের স্থানীয় প্রাণী এবং সাধারণত ইটুরি নামক বনেই সবচেয়ে বেশি দেখা যায়, রেনফরেস্ট অ্যালায়েন্স অনুযায়ী।

ওকাপির স্বভাব

ওকাপির স্বভাব
ওকাপির স্বভাব

এরা একা থাকে এবং একটি নির্দিষ্ট স্থানে থাকে। তাদের পায়ে সুগন্ধি গ্রন্থি রয়েছে যা দিয়ে তারা এক প্রকার আঠালো এবং আলকাতরার মত কিছু ছড়ায়। এতে তাদের নিজস্ব অঞ্চল মার্ক করা হয়। এছাড়া পুরুষরা প্রসাব করেও তাদের অঞ্চল চিহ্নিত করে। তবে খাওয়া, খেলাধুলা কিংবা মিলনের জন্য কদাচিৎ এদেরকে ছোট দলেও দেখা যায়।

ওকাপির খাদ্যাভ্যাস

ওকাপির খাদ্যাভ্যাস
ওকাপির খাদ্যাভ্যাস

ওকাপিরা তৃণভোজী প্রাণী। সুতরাং এরা শুধুমাত্র গাছপালা খায়। গাছপালা ছাড়াও কুঁড়ি, ছত্রাক এবং ফল খায়। অল্প পরিমান নদীগর্ভের কাদামাটি খাওয়াও হজমের জন্য খুব সহায়ক।

প্রতিদিন এরা ৪৫ থেকে ৬০ পাউন্ড (২০ থেকে ২৭ কেজি) পরিমান খাবার খায়। আর পানি খাওয়ার সময় জিরাফের মতো এরাও পানির কাছাকাছি যেতে পা ছড়িয়ে দেয়।

ওকাপির প্রজনন

ওকাপির প্রজনন
ওকাপির প্রজনন

স্ত্রী ওকাপি সাধারণত এক বারে শুধুমাত্র একটি শিশুর জন্ম দেয়। ১৪ থেকে ১৬ মাস গর্ভধারণের পর এদের জন্ম হয়। বাচ্চা ওকাপিদের বাছুর বলা হয়। জন্মের সময় এরা লম্বায় প্রায় ২.৬ ফিট (৮০ সেমি.) হয় এবং ওজনে হয় ৩৫ পাউন্ড (১৬ কেজি) এর মত। মাত্র দুই মাসেই এই বাচ্চা প্রায় ৩ গুন হয়ে যায়।

বাচ্চা ওকাপিরা জন্মের ৩০ মিনিট পর থেকেই হাঁটতে পারে। San Diego Zoo এর মতে ৪ থকে ৮ সপ্তাহ পর্যন্ত বাচ্চা গুলো মলত্যাগ করে না। এটি একটি আত্মরক্ষামূলক ব্যবস্থা। কেননা মলের গন্ধ ছাড়া, দুর্বল নবজাতকদের ট্র্যাক করা শিকারীদের পক্ষে খুবই কঠিন। ২ থেকে ৩ বছর বয়সে এরা পরিনত হয় এবং এরা বাঁচে প্রায় ২০-৩০ বছর।

ওকাপির সংরক্ষণ অবস্থা

ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন ফর কনজারভেশন অব নেচার (IUCN) এর মতে ওকাপি একটি বিপন্নপ্রায় প্রাণী। কেননা গত ২৪ বছরে ওকাপিদের সংখ্যা ৫০% এরও বেশি কমে গেছে। আর এখনো কমছে।

বর্তমানে জঙ্গলে শুধুমাত্র ২৫,০০০ ওকাপি জীবিত আছে বলে মনে করা হয় – San Diego Zoo। আইইউসিএন ওকাপিদের জনসংখ্যা হ্রাসের কারণ হিসাবে শিকার এবং ওকাপিদের বসবাসের স্থান সঙ্কটের কথা বলা হয়েছে।



error: