বুর্জ খলিফা: বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু ভবন সম্পর্কে জানা অজানা তথ্য

মিশরের পিরামিড থেকে চিচেন ইৎজা, টুইন টাওয়ার থেকে বুর্জ খলিফা পর্যন্ত মানুষ সবসময় চেয়েছে আকাশকে ছুতে। সেই আকাশ ছোয়ার লড়াই এ বিজয়ী এখন পর্যন্ত বুর্জ খলিফা। আজকের লেখা বুর্জ খলিফা নিয়ে। বুর্জ খলিফা বর্তমানে পৃথিবীর সর্বোচ্চ ভবন ২০০৮ সাল থেকে। যদিও ভবনটি ২০১০ সালের ৪ঠা জানুয়ারী উদ্বোধন করা হয়। গগনচুম্বী এই ভবনটি আরব আমিরাতের দুবাই শহরে অবস্থিত এবং উদ্বোধন করেন তৎকালীন দুবাই এর শাসক শেখ মোহাম্মদ বিন রাশেদ আল মাক্তুম।

গগনচুম্বী বুর্জ খলিফা

বুর্জ খলিফা (আরবি শব্দ) এর বাংলা অর্থ “খলিফার টাওয়ার”। সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রেসিডেন্ট শেখ খলিফা বিন জায়েদ আল নাহিয়ানের সম্মানে ভবনটির নাম রাখা হয় বুর্জ খলিফা। যদিও এটি “দুবাই টাওয়ার” নামেও পরিচিত ছিলো।

কত বিশাল এই ভবন?

গগনচুম্বী বুর্জ খলিফা

গগনচুম্বী বুর্জ খলিফা

বুর্জ খলিফার উচ্চতা ২৭১৭ ফুট বা ৮১৮ মিটার, যা প্রায় আধা মাইল দীর্ঘ। সর্বোচ্চ উচ্চতা থেকে প্রায় ৬০ মাইল বা ৯৫ কিলোমিটার দূর  স্পষ্টভাবে দেখা যায়। ১৬০ তলাবিশিষ্ট ভবনটি দেখতে রকেটের মতো। মজার আরেকটি বিষয় হলো ভবনটির নিচতলা থেকে সর্বোচ্চ তলার মধ্যে ১০ ডিগ্রী সেলসিয়াস তাপমাত্রার পার্থক্য রয়েছে। ভূমি থেকে ভবনটি এতো উচু যে ভবনের উপরতলার লোকজন সূর্যাস্তের পরও দুই মিনিট সূর্যটাকে দেখতে পায়। তাই মুসল্লিরা রমজান যখন ইফতার করে তার ২মিনিট পর উপরতলার মানুষজন ইফতার করেন।

আরো পড়ুন:  টপ ৫: সংযুক্ত আরব আমিরাতের সবচেয়ে দর্শনীয় ও আকর্ষণীয় স্থান

কার এতো বড় বাড়ি? 😜

এমার প্রপার্টিজ নামে ১টি আধা সরকারি রিয়েল এস্টেট কোম্পানি এই ভবনের মালিক। কারো ব্যাক্তিগত মালিকানা নেয়। বুর্জ খলিফার স্থপতি হলেন যুক্তরাষ্ট্রের সুনামধন্য ব্যক্তি অড্রিয়ান স্মিথ।

কি দিয়ে বানানো বুর্জ খলিফা

“বুর্জ খলিফার” নির্মাণকাজ ২০০৪ সালে শুরু হয় এবং ২০০৯ সালে ভবনের কাজ শেষ হয়। সুবিশাল এই ভবনটি তৈরীতে ইট,বালি,রড,সিমেন্ট ছাড়াও গ্লাস ও স্টিল ব্যবহার করা হয়। ভবনটিতে যত পরিমাণ গ্লাস এবং স্টিল ব্যবহার করা হয়েছে  সেগুলো একসাথে রাখতে প্রায় ১৭টি স্টেডিয়ামের সমান জায়গা দরকার হবে। আর যে পরিমাণ ইট-বালি-সিমেন্ট খরচ হয়েছে তা দিয়ে প্রায় ১২৮৩ মাইল লম্বা দেওয়াল বানানো যেত।

মারিনা বে’র বাইরের আবরণটা খুঁচিয়ে তুলে ফেলো। পেয়ে যাবে চীনা, মালয়, ভারতীয় আর পাশ্চাত্য রীতিনীতির এক অদ্ভুত মিশেল। আর…

Posted by FactsBD on Monday, March 12, 2018

বুর্জ খলিফা ভবনটিতে ৫৪টি লিফট বা এলিভেটর রয়েছে যার গতি ঘন্টায় ৪০ মাইল। বুর্জ খলিফা ভবন নির্মাণে লোহা ব্যবহার করা হয় মাত্র ৪ হাজার টন যা পরিমাণে ছিল এম্পায়ার স্টেট বিল্ডিংয়ের অর্ধেক। যদিও উচ্চতায় বুর্জ খলিফা এম্পায়ার স্টেট এর দ্বিগুন।

বুর্জ খলিফার বাজেট

যেমন উঁচু ভবন তেমন উঁচু খরচের খাতা। পুরো ভবনটি তৈরিতে ব্যয় করা হয়েছে  ১.৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। যার পরিমাণ বাংলাদেশী টাকায় প্রায় ১২ হাজার ৪শত ৬৯ কোটি টাকা। ভবনের সামনে চোখ ধাধানো ১টি ফোয়ারা আছে। এটি বানাতে খরচ হয়েছে ১৩৩ মিলিয়ন ব্রিটিশ পাউন্ড। বাংলাদেশী টাকায় এর পরিমাণ ১হাজার ৬শত ৯১কোটি ৩৮লক্ষ ৭৬হাজার টাকা।

বুর্জ খলিফার তলা বিন্নাস

সুউচ্চ এই ভবনটি নানা রকম কাজে ব্যবহার করা হয়। এখানে প্রায় ৯০০ অ্যাপার্ট্মেন্ট আছে ।এছাড়াও মসজিদ,সুইমিং পুল,হোটেল ও প্রকৃতি দর্শনের ব্যবস্থা রয়েছে।

পার্কিং,কারিগর: বি১ ও বি২

আরমানি হোটেল: খোলা স্থান, নিচতলা, ১-৮ তলা

আরমানি বাসস্থান: ৯ থেকে ১৬ তলা

কারিগরি: ১৭ থেকে ১৮ তলা

আবাসিক: ১৯ থেকে ৩৭ তলা

আরমানি হোটেল স্যুট: ৩৮ থেকে ৩৯ তলা

কারিগরি: ৪০ থেকে ৪২ তলা

স্কাই লবি: ৭৬ তলা

আবাসিক: ৭৭ থেকে ১০৮ তলা

কারিগরি: ১০৯ থেকে ১১০ তলা

কর্পোরেট স্যুট: ১২৫ থেকে ১৩৫ তলা

কারিগরি: ১৩৬ থেকে ১৩৮ তলা

কর্পোরেট স্যুট: ১৩৯ থেকে ১৫৪ তলা

কারিগরি: ১৫৫ তলা

যোগাযোগ ও সম্প্রচার: ১৫৬ থেকে ১৫৯ তলা

কারিগরি: ১৬০ তলা

বুর্জ খলিফার যত রেকর্ড

বুর্জ খলিফার যত রেকর্ড

বুর্জ খলিফার যত রেকর্ড

এবার আসি রেকর্ডের খাতাতে। শুধু উচ্চতা নয় অনেক রেকর্ড বানিয়ে ফেলেছে ইঞ্জিনিয়ারিং বিস্ময় এর বুর্জ খলিফা। যেমন –

  • বিশ্বের সর্বাধিক তলাবিশিষ্ট ভবনঃ ১৬০ তলা
  • সর্বোচ্চতম আবাসনঃ ১০৮ তলা পর্যন্ত
  • সর্বোচ্চ ভবনঃ ৮২৮ মিটার
  • বিশ্বের দীর্ঘতম এলিভেটরঃ ৫০৪ মিটার
  • বিশ্বের উচ্চতম মসজিদঃ ১৫৮ তলায়
  • বিশ্বের উচ্চতম সুইমিংপুলঃ ৭৬তলায়
  • বিশ্বের উচ্চতম পর্যবেক্ষণ ডেকঃ ৪৪২ মিটার উঁচু
  • বিশ্বের উচ্চতম নাইট ক্লাব
  • বিশ্বের দ্রুততম এলিভেটরঃ ঘন্টায় ৬৪ কি.মি.

আরো অনেক অনেক। এছাড়াও আত্মহত্যায়ও রেকর্ডের অধিকারী এই ভবনটি। ২০১১ সালের ১০ মে এক ব্যক্তি ১৪৬ তলা থেকে লাফ দেন। পরে ৩৮ তলায় এসে তিনি নিহত হন।

লেখক: MD Mostafizur Rahman

data-matched-content-rows-num="2" data-matched-content-columns-num="2"

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *