টপ ৫: রাফায়েল এর বিখ্যাত ৫টি চিত্রকর্ম

লিওনার্দো দ্য ভিঞ্চি এবং মাইকেলেঞ্জেলোর সাথে সাথে সমৃদ্ধ রেনেসাঁস আর্টের অন্যতম একজন শিল্পী ছিলেন ইতালির চিত্রকর রাফায়েল, পুরো নাম রাফায়েল্লো সেনজিও দ্যা আরবিনো। তিনি তার ছবিতে মানুষের আবেগ-অনুভূতি জীবন্ত করে তুলতেন। ছোটবেলা থেকেই চিত্রশিল্পে তার হাতে খড়ি হয়, ডিউকের শিল্পী তার বাবা জিওভান্নি শান্তির কাছ থেকে। এরপর তিনি এঁকেছেন একেরপর এক বিশ্ববিখ্যাত ছবি। রাফায়েল মারা যান মাত্র ৩৭ বছর বয়সে, তবে এর মধ্যেই অনেক উল্লেখযোগ্য চিত্রকর্ম করে গেছেন। আজ চলুন রেনেসাঁস আর্টের অন্যতম এই শিল্পী রাফায়েলের বিখ্যাত ৫ টি চিত্রকর্ম দেখে নেই।

রাফায়েল এর সেরা ৫টি চিত্রকর্ম

ম্যাডোনা অ্যান্ড চাইল্ড উইথ সেন্ট জন দ্য ব্যাপটিস্ট

ম্যাডোনা অ্যান্ড চাইল্ড উইথ সেন্ট জন দ্য ব্যাপটিস্ট

ম্যাডোনা অ্যান্ড চাইল্ড উইথ সেন্ট জন দ্য ব্যাপটিস্ট

রাফায়েল এর আঁকা অন্যতম বিখ্যাত এবং জনপ্রিয় একটি তৈলচিত্র হল ম্যাডোনা অ্যান্ড চাইল্ড উইথ সেন্ট জন দ্য ব্যাপটিস্ট (Madonna and Child with Saint John the Baptist)। এটি তিনি ফ্লোরেন্সে থাকা অবস্থায় এঁকেছিলেন এবং কাজ শেষ হয় ১৫০৭ সালে।

নামের মতই ছবিতে দেখা যায়, ম্যাডোনা, শিশু যীশু এবং সেন্ট জন দ্য ব্যাপটিস্টকে। এখানে ম্যাডোনার কোমল মুখ, শিশু যীশুর দাঁড়ানোর অনাড়ম্বর ভঙ্গি এবং শিশু জন দ্য ব্যাপটিস্ট, সবই রাফায়েলের আঁকনির বিশুদ্ধতার প্রতীক।

আরো পড়ুন:  টপ ৫: লিওনার্দো দ্য ভিঞ্চির সবচেয়ে বিখ্যাত ৫টি চিত্রকর্ম

ডিস্পুটেশন অব দ্য হোলি স্যাক্রামেন্ট

ডিস্পুটেশন অব দ্য হোলি স্যাক্রামেন্ট

ডিস্পুটেশন অব দ্য হোলি স্যাক্রামেন্ট

এটি রাফায়েলের আঁকা একটি ফ্রেস্কো নাম ডিস্পুটেশন অব দ্য হোলি স্যাক্রামেন্ট (Disputation of the Holy Sacrament, হোলি স্যাক্রামেন্টের তর্কযুদ্ধ)। ফ্রেস্কো হল সদ্য প্লাস্টার করা ভিজে দেয়াল বা ছাদে জল মেশানো গুঁড়ো রঙ দিয়ে আঁকা ছবি। এটি তার প্রধান প্রধান চারটি ফ্রেস্কোর মধ্যে প্রথমটি। চারটি ফ্রেস্কো চারটি ভিন্ন বিষয়ে করা – দর্শনশাস্ত্র, কবিতা, ধর্মতত্ত্ব, এবং আইন। যার মধ্যে এই ডিস্পুটেশন অব দ্য হোলি স্যাক্রামেন্টটিতে প্রতিফলিত হয়েছে ধর্মতত্ত্ব।

ফ্রেস্কোটিতে স্বর্গ এবং মর্ত – উভয়ই আছে। যার উপরের অংশে রয়েছে যীশু খৃষ্ট। যাকে ঘিরে রয়েছে কুমারী মেরী, জন দ্য ব্যাপ্টিস্ট এবং মোজেস ও আদম নামে দুইজন বাইবেলীয় চরিত্র। আর তাদের উপরে আছেন ঈশ্বর। আর নিচের অংশে রয়েছে ভক্ত, বিশপ, পোপ, পুরোহিত এবং আরাধনারত জনসাধারণ। আর আপনি যদি আরেকটু মনোযোগের সঙ্গে দেখেন তবে দেখতে পাবেন রেনেসাঁ যুগের আরেক শিল্পী দান্তে আলেঘিয়েরি কে।

আরো পড়ুন:  টপ ৫: শিল্পগুরু মাইকেলেঞ্জেলোর বিখ্যাত ৫টি শিল্পকর্ম

দ্য ট্রান্সফিগারেশন (রূপান্তর)

দ্য ট্রান্সফিগারেশন (রূপান্তর)

দ্য ট্রান্সফিগারেশন (রূপান্তর)

দ্য ট্রান্সফিগারেশন (The Transfiguration, রূপান্তর) রাফায়েলের আঁকা সর্বশেষ ছবি (তিনি ১৫২০ সালে মৃত্যুবরণ করেন)। এটি কার্ডিনাল এবং পোপ জুলিও ডি মেডিচি দ্বারা অনুমোদিত ছবি। ছবিটিকে দুইটি অংশে ভাগ করা যায়। এর উপরের দিকে আছে যীশুর রূপান্তর, সাথে আছে মোজেস এবং ইলিয়াস। এখানে যীশুখ্রিস্ট একটি ভূতাবিষ্ট বালককে শয়তানের খপ্পর থেকে উদ্ধার করছেন।

আর নিচের অংশে দেখা যাচ্ছে ঈশ্বরের বাণী প্রচারের জন্য যিশুখ্রিস্ট কর্তৃক নির্বাচিত বার জন শিষ্যের যে-কোনো একজন এবং আরো কিছু প্রচারক একই কাজ করছেন। কিন্তু তারা সে কাজে ব্যর্থ। এটা বলা হয় যে উপর – আর নিচের এই পার্থক্য ঈশ্বর এবং মানুষের মধ্যে পার্থক্য নির্দেশ করে। ছবিটি সম্পর্কে রেনেসাঁসের আরেক শিল্পী ও স্থপতি গিওর্গিও ভাসারির বলেন, “এটি সবচেয়ে সুন্দর এবং সবচেয়ে ঐশ্বরিক একটি কাজ”।

সিস্টিন ম্যাডোনা

সিস্টিন ম্যাডোনা

সিস্টিন ম্যাডোনা

সিস্টিন ম্যাডোনা (Sistine Madonna) ছবিটি পোপ দ্বিতীয় জুলিয়াস দ্বারা ১৫১২ সালে অনুমোদিত একটি তৈলচিত্র। ছবিটিতে দেখা যায় ম্যাডোনা শিশু জিশু কে ধরে রেখেছে। আর পাশে আছে সেইন্ট সিক্সটাস এবং সেইন্ট বারবারা। এছাড়াও নিচে দেখা যায় দুই-পাখাযুক্ত দুইটি স্বর্গীয় দূত। আসলে এই ছবির এই স্বর্গীয় দূতদ্বয়ই মূলত বেশি জনপ্রিয়।

প্রথমে এটি পিয়াসেঞ্জাতে অবস্থিত সান সিস্তো চার্চের জন্য আঁকা হলেও বর্তমানে এটি সংরক্ষিত আছে জার্মানির ড্রেসডেনে অবস্থিত স্টালিসে কুন্সটাম্লুগেনে।

আরো পড়ুন:  টপ ৫: রেনেসাঁ যুগের সবচেয়ে বিখ্যাত ৫টি চিত্রকর্ম

দ্য স্কুল অব এথেন্স

দ্য স্কুল অব এথেন্স

দ্য স্কুল অব এথেন্স

দ্য স্কুল অব এথেন্স (The School of Athens) ছবিটি রেনেসাঁ যুগের একটি বিখ্যাত চিত্রকর্ম। ১৫১০ থেকে ১৫১১ সালের মাঝামাঝি সময়ে চিত্রকর্মটি এঁকেছেন তিনি। এটি রাফায়েলের অন্যতম একটি উল্লেখযোগ্য কর্ম হিসেবে পরিগণিত হয়। এটি তার প্রধান প্রধান চারটি ফ্রেস্কোর মধ্যে অন্যতম। চারটি ফ্রেস্কো চারটি ভিন্ন বিষয়ে করা – দর্শনশাস্ত্র, কবিতা, ধর্মতত্ত্ব, এবং আইন। যার মধ্যে এই দ্য স্কুল অব এথেন্স ফ্রেস্কোটিতে প্রতিফলিত হয়েছে দর্শনশাস্ত্র। এখানে মোট ২১ জন দার্শনিক রয়েছেন যার মধ্যে বেশিরভাগই গ্রীক দার্শনিক। ছবিটির ঠিক মাঝের দুজন প্লেটো আর অ্যারিস্টেটল। ভাববাদী দার্শনিক প্লেটোর হাতে আছে বই আর উপরের দিকে আঙ্গুল উঁচিয়ে রাখা। ছাত্র অ্যারিস্টেটলকে এই জগতের দৃশ্যমানের বাইরে অদৃশ্যমান কিছু মহান জ্ঞান সম্পর্কে বোঝাচ্ছেন।

তার এই ছবিটির উচ্চমার্গীয় আত্মিক দিক সম্পর্ক বিবেচনা করে এর গ্রহণযোগ্যতা সবার কাছে বেড়ে গেছে। বর্তমানে ছবিটি সংরক্ষিত আছে ভ্যাটিকান সিটিতে পোপের নিজ বাসভবনে। রাফায়েল, পোপ দ্বিতীয় জুলিয়াসের নির্দেশে তার আবাস কক্ষে এই ক্যানভাসটি করেছিলেন।

আরো আছে: দ্য থ্রী গ্রেসেস, পোপ দ্বিতীয় জুলিয়াসের প্রতিকৃতি, সেন্ট মিখাইল, দ্য করোনেশন অব দ্য ভার্জিন, লা বেল জার্দিনিয়্যার, দ্য এন্টুম্বমেন্ট ইত্যাদি।

data-matched-content-rows-num="2" data-matched-content-columns-num="2"

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *