বাংলাদেশের জেলা: কোন জেলা কিসের জন্য বিখ্যাত? (পর্ব ১)

আমাদের ৮ টি বিভাগের মধ্যে মোট ৬৪ টি জেলা রয়েছে এবং প্রত্যেকটি জেলা কোন না কোন কারণে বিখ্যাত। অথচ আমরা অনেকেই জানিনা আমাদের পাশের জেলাটিই কি কারনে বিখ্যাত। তাই আমরা আজকে দেখবো আমাদের কোন জেলা কিসের জন্য বিখ্যাত। আর এসব জানার মাধ্যমে আমরা ঐসব জেলার ইতিহাস – ঐতিহ্য নিয়েও কিছুটা ধারণা পাবো৷ ৷ তাই চলুন দেরি না করে শুরু করা যাক। আজকের এ পর্বে আমরা দেখবো ঢাকা, গোপালগঞ্জ, নারায়ণগন্জ, মুন্সিগঞ্জ, ফরিদপুর, টাঙ্গাইল, গাজীপুর এবং ফেনী জেলা কিসের জন্য বিখ্যাত।

বাংলাদেশের কোন জেলা কিসের জন্য বিখ্যাত?

ঢাকা জেলা কিসের জন্য বিখ্যাত?

রাজধানী ঢাকার বিখ্যাত বেনারসি শাড়ি এবং কাচ্চি বিরিয়ানি

রাজধানী ঢাকার বিখ্যাত বেনারসি শাড়ি এবং কাচ্চি বিরিয়ানি

ঢাকা, বাংলাদেশের রাজধানী। আর এই রাজধানী ঢাকা বিখ্যাত বেনারসি শাড়ি এবং কাচ্চি বিরিয়ানির এর জন্য। ঢাকার এই বেনারসি শাড়ির মূল উত্‍পত্তিস্থল হলো ভারতের বেনারস শহর (যার থেকে নাম বেনারসি শাড়ি)। তবে ঠিক কবে থেকে ঢাকা শহরের মুসলিম তাঁতিরা বংশ পরম্পরায় বেনারসি শাড়ি তৈরি করে আসছে, তা জানা না গেলেও এটি ঢাকার ঐতিহ্যের অংশ হয়ে গেছে। অন্যদিকে পুরান ঢাকার কাচ্চি বিরিয়ানি সেই মোঘল আমল থেকেই সবার কাছে খুব জনপ্রিয়। আজও বিরিয়ানির সেই ঐতিহ্য পুরান ঢাকাবাসী ধরে রেখেছে। আর তাই পুরান ঢাকায় দেখা যায় প্রচুর বিরিয়ানির দোকান। এসব দোকানের মধ্যে অন্যতম হল কাজী আলাউদ্দিন রোডের হাজীর বিরিয়ানী, মৌলভীবাজার রোডের নান্না মিয়ার বিরিয়ানী এবং নবাবপুরের ষ্টার হোটেলের কাচ্চি বিরিয়ানী।

আরো পড়ুন:  টপ ৫: মেগাসিটি ঢাকা শহর সম্পর্কে মজার তথ্য (ভিডিও)

নারায়ণগন্জ জেলা কিসের জন্য বিখ্যাত?

নারায়ণগন্জ জেলার বিখ্যাত পাট এবং বস্ত্র শিল্প

নারায়ণগন্জ জেলার বিখ্যাত পাট এবং বস্ত্র শিল্প

নারায়ণগন্জ জেলা বিখ্যাত পাট এবং বস্ত্র শিল্পের জন্য। এই জেলা বাংলাদেশের অত্যন্ত প্রাচীন এবং প্রসিদ্ধ একটি অঞ্চল। জেলাটি সোনালী আশঁ, পাটের জন্য ‘প্রাচ্যের ড্যান্ডি’ নামে পরিচিত। বিশ্বের সবচেয়ে বড় পাটকল আদমজী পাটকল নারায়ণগঞ্জেই অবস্থিত ছিল। তবে বর্তমানে এই পাটকল বন্ধ করে আদমজী ইপিজেড গড়ে তোলা হয়েছে। এই অঞ্চলের জামদানি ও মসলিনের কাপড় তৈরির ইতিহাস প্রায় সাড়ে ৪ শত বছরের পুরোনো। ইতিহাস খ্যাত মসলিন কাপড় প্রচীনকালে এখানে তৈরী হতো। তবে বর্তমানে জামদানি শিল্প টিকে থাকলেও মসলিন শিল্প বিলুপ্ত।

টাঙ্গাইল জেলা কিসের জন্য বিখ্যাত?

টাঙ্গাইল জেলার বিখ্যাত পোড়াবাড়ির চমচম এবং টাঙ্গাইল শাড়ি

টাঙ্গাইল জেলার বিখ্যাত পোড়াবাড়ির চমচম এবং টাঙ্গাইল শাড়ি

টাঙ্গাইল জেলা বিখ্যাত পোড়াবাড়ির চমচম এবং টাঙ্গাইল শাড়ির জন্য। টাঙ্গাইল শব্দটা মনে বললেই আমাদের মনে এই দুটি শব্দ এসে যায়। আর টাঙ্গাইল জেলার এই তাঁত শিল্প বাংলাদেশের অন্যতম ঐতিহ্য যা হাজার বছরেরও পুরনো। প্রাচীন কাল থেকেই টাঙ্গাইলের দক্ষ কারিগররা তাদের বংশ পরম্পরায় তৈরি করছেন এই টাঙ্গাইল শাড়ি। এমনকি বিখ্যাত পর্যটক ইবনে বতুতা ও হিউয়েন সাং- এর ভ্রমণ কাহিনীতেও টাঙ্গাইলের তাঁত শিল্পের উল্লেখ রয়েছে। আর মিষ্টির রাজা বলে খ্যাত পোড়াবাড়ির চমচমের স্বাদ আর স্বাতন্ত্রের ও এর জুড়ি মেলাভার। এই সুস্বাদু ও লোভনীয় চমচম মিষ্টি টাঙ্গাইলের অন্যতম একটি ঐতিহ্য। এই ঐতিহ্য প্রায় ২শ’ বছরের প্রাচীন। বাংলা বিহার ছাড়িয়ে ভারত বর্ষ তথা গোটা পৃথিবী এর সুনাম রয়েছে। টাঙ্গাইলের তাঁতের শাড়ির এবং পোড়াবাড়ির চমচমের কারনেই টাঙ্গাইলের সুনাম পুরো দেশ ছারিয়ে সমগ্র বিশ্বব্যাপী।

মুন্সিগঞ্জ জেলা কিসের জন্য বিখ্যাত?

মুন্সিগঞ্জ জেলার বিখ্যাত ভাগ্যকুলের মিষ্টি এবং আলু

মুন্সিগঞ্জ জেলার বিখ্যাত ভাগ্যকুলের মিষ্টি এবং আলু

মুন্সিগঞ্জ জেলা বিখ্যাত ভাগ্যকুলের মিষ্টি এবং আলুর জন্য। পূর্বে বিক্রমপুর নামে পরিচিত এই মুন্সিগঞ্জ জেলা বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ একটি রাজনৈতিক কেন্দ্র ছিল। এমনকি এই অঞ্চলটি চন্দ্র, বর্মন ও সেন রাজাদের রাজধানীও ছিল। তবে সেই ঐতিহ্য এখন আর নেই। তবুও দেশব্যাপী এর খ্যাতি আছে মিষ্টি এবং আলুর জন্য। এছাড়া এককালে মুন্সীগঞ্জ-বিক্রমপুর তথা রামপালের কলার প্রচুর খ্যাতি ছিল দেশ-বিদেশে। দেশের চাহিদা মিটিয়ে রামপালের ওই কলা যেতো মধ্য প্রাচ্য, ইউরোপ, আফ্রিকা ও আমেরিকায়।

ফরিদপুর জেলা কিসের জন্য বিখ্যাত?

ফরিদপুর জেলার বিখ্যাত খেজুরের গুঁড়

ফরিদপুর জেলার বিখ্যাত খেজুরের গুঁড়

ফরিদপুর জেলা বিখ্যাত খেজুরের গুঁড়ের জন্য। শীতকালে ফরিদপুরের গ্রামগুলোতে প্রতিদিনই খেজুরের রস সংগ্রহ করা হয় আর তা থেকে চলে খেজুরের গুড় তৈরি। এসব গুড় পায়েস, পিঠা বা মিষ্টিতে ব্যবহার করলে তার স্বাদ কয়েকগুণ বেড়ে যায়। এছাড়া শীতের সকালে অনেকেরই পছন্দের পানীয় খেজুরের রস যা শীতের সকালে ফরিদপুরে প্রায় সবখানেই দেখা যায়।

আরো পড়ুন:  ঘাঁটু গান: বিকৃত লালসার স্বীকার হয়ে ধর্ষিত এক লোকগীতি

গোপালগঞ্জ জেলা কিসের জন্য বিখ্যাত?

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

গোপালগঞ্জ জেলা বিখ্যাত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং রপ্তানিযোগ্য পাট ও তরমুজের জন্য। গোপালগঞ্জ জেলার কথা চিন্তা করলেই মনে আশে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কথা। হ্যাঁ, তার জন্মস্থান গোপালগঞ্জেই। এছাড়া এ অঞ্চলের পাট ও তরমুজ দেশব্যাপী সমাদৃত। বর্তমানে এসব পাট ও তরমুজ বিদেশে রপ্তানি করার চেষ্টা করা হচ্ছে।

গাজীপুর জেলা কিসের জন্য বিখ্যাত?

গাজীপুর জেলার বিখ্যাত কাঁঠাল

গাজীপুর জেলার বিখ্যাত কাঁঠাল

গাজীপুর জেলা বিখ্যাত কাঁঠাল এবং পেয়ারার জন্য। গ্রীষ্মকালে গাজীপুর জেলার গ্রামগুলো হয়ে উঠে কাঁঠালে সয়লাব। যেদিকে চোখ যায় শুধু কাঁঠাল আর কাঁঠাল। বাড়ির উঠোন, ঘরের বারান্দা সবখানেই একই দৃশ্য। হাট-বাজারে বিক্রিও হচ্ছে খুব। শুধু তাই-ই নয়, এ কাঁঠাল চলে যাচ্ছে মধ্যপ্রাচ্যসহ বিশ্বের ১৫টি দেশে। আর গাজীপুরের পেয়ারাও খুবই জনপ্রিয়। চাহিদা থাকার কারনে সারা বছরই এসব পেয়ারা বাজারে দেখা যায়। এই এলাকার পেয়ারাগুলো উন্নত জাতের এবং আকারেও অনেক বড় হয়।

ফেনী জেলা কিসের জন্য বিখ্যাত?

ফেনী জেলার বিখ্যাত মহিষের দুধের ঘি এবং খন্ডলের মিষ্টি

ফেনী জেলার বিখ্যাত মহিষের দুধের ঘি এবং খন্ডলের মিষ্টি

ফেনী জেলা বিখ্যাত মহিষের দুধের ঘি এবং খন্ডলের মিষ্টির জন্য। বাংলাদেশের মিষ্টি জগতে ফেনিতে অবস্থিত পরশুরামের খন্ডলের মিষ্টি এক অনন্য নাম। সেই ১৯৭০ সালে এই দৃষ্টি নন্দন ও সু-স্বাদু মিষ্টি তাদের ঐতিহ্যের স্বাদ ধরে রেখেছে। মিষ্টি তৈরীর দৃশ্য দেখার জন্য এবং কিনার জন্য প্রতিদিন ব্যাপক মানুষের সমাগম হয় এখানে। এমনি নব্বইয়ের দশকে তৎকালিন প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াও এই খন্ডলের মিষ্টি খেয়ে খুবই খুশি হন। অন্যদিকে মহিষের দুধে অনেক বেশি ফ্যাট থাকে। যেকারনে মহিষের দুধ দিয়ে গাভীর দুধের প্রায় দ্বিগুণ পরিমাণ ঘি তৈরি করা যায়। ফেনীর এই মহিষের ঘিও দেশব্যাপী সমৃদ্ধ।

প্রিয় পাঠক! আমাদের দেশের বিভিন্ন জেলায় অনেক ধরনের পণ্য রয়েছে যা একেবারেই আমাদের নিজস্ব। যেমন বগুড়ার দই, কুমিল্লার রসমালাই, টাঙ্গাইলের চমচম, নাটোরের কাঁচাগোল্লা, রাজশাহীর রেশম, চাঁদপুরের ইলিশ ইত্যাদি। আশা করি এই পণ্যগুলোকে ব্র্যান্ডের মর্যাদা দিয়ে আমরা সকল জেলা তথা বাংলাদেশকে সারা বিশ্বে তুলে ধরতে পারবো। আর পোষ্টটি ভালো লাগলে আশাকরি অবশ্যই সবার সাথে শেয়ার করবেন।

data-matched-content-rows-num="2" data-matched-content-columns-num="2"

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *