টপ ৫: দা ভিঞ্চি কোড এর মতো আরো ৫ টি বই

দা ভিঞ্চি কোডের মতো আরো ৫ টি বই

দা ভিঞ্চি কোডের মতো আরো ৫ টি বই

দা ভিঞ্চি কোড, মার্কিন লেখক ড্যান ব্রাউনের লেখা ধর্ম, রোমাঞ্চ, অপরাধ ও রহস্যে ঘেরা একটি বিখ্যাত উপন্যাস। হার্ভাড বিশ্ববিদ্যালয়ের “রিলিজিয়াস সিম্বোলজি” (ধর্মীয় প্রতীকবিদ্যা) এর অধ্যাপক রবার্ট ল্যাংডন ও সোফি নেভুর প্যারিসের ল্যুভর মিউজিয়ামে ঘটে যাওয়া খুনের ঘটনার তদন্ত নিয়ে রহস্যে ভরপুর এই উপন্যাসটি সাজানো হয়েছে। যারা এই উপন্যাসটি পড়েছে তাদের ভাবনার দুয়ারে রহস্য অনুমতি ছাড়া কয়েকবার উঁকি ঝুকি দিয়ে গেছে। যারা পড়েন নি এক বার হলে পড়ে নিবেন। বইটির বাংলা সহ ৪৫ ভাষার অনুবাদ আছে এবং যারা পড়েছেন অবশ্যই এই পাঁচটি রহস্য ভরপুর বইগুলো পড়ে দেখবেন।

দা ভিঞ্চি কোডের মতো আরো ৫ টি বই

মোনা লিসার সিক্রেট

মোনা লিসার সিক্রেট

মোনা লিসার সিক্রেট

জোয়ি উইনসিঞ্জো পেরুগিয়া, যিনি ১৯১১ সালে মূল মোনালিসা চিত্রকর্ম চুরি করে নিয়েছিলেন। তার বান্ধবী মেরি, একজন চিত্রশিল্পী সহকারী। তিনি তার বাবার গোপনীয় কক্ষের কাছে হোঁচট খেয়েছিলেন এবং তিনি যা দেখেছেন ভিঞ্চির সবচেয়ে বিখ্যাত মাস্টারপিসের প্রতিরূপ ছিল। কিন্তু এটা জাল না! এরপর থেকে হারানোর খবর প্যরিসের ল্যুভর মিউজিয়ামে একশত বছর গোপন রাখা হয়েছে, মূলটা আসার জন্য অপেক্ষায়, এবং এটি তারা যেকোনো মূলে ফেরত পাওয়ার চেষ্টা করতে থাকে। মেরি, ল্যুভর কিউরেটর এবং তার লোকজন তার পেছনে লেগেছিল। জোয়ি তার জীবনের জন্য একটি অপরিচিত শহরে দৌড়ে পালিয়ে যায়। তার সাথে একমাত্র ছিল ঐ মোনালিসা চিপ। মেরি উদ্ধারের পরিকল্পনা করছিল যখন, তখন জোয়ি পেন্টিং এর গোপন রহস্য আবিষ্কার করতে থাকে, যা সারা পৃথিবী চিরতরে বদলে দিতে পারে। ফিল ফিলিপসের লেখা মোনা লিসার সিক্রেট (Mona Lisa’s Secret) বইটির কাহিনী এইভাবেই আবর্তীত হতে থাকে।২০১৬ সালে প্রকাশের পর বইটি মোনালিসা ও রহস্য প্রেমিদের কাছে জনপ্রিয় হতে থাকে।

আরো পড়ুন:  টপ ৫: দ্য আলকেমিস্ট এর মতো আরো ৫ টি বই

দ্য লস্ট কোডেক্স

দ্য লস্ট কোডেক্স

দ্য লস্ট কোডেক্স

মার্কিন লেখক এলেন জেকবসনের লেখা দ্য লস্ট কোডেক্স (The Lost Codex) বহু কাল ধরে ঘটে যাওয়া ভূ-রাজনিতী, ধর্ম ও অপরাধ মূলক ঘটনা প্রবাহ ধারা সাজানো বেস্ট সেলার উপন্যাস। ৯৩০ খ্রিষ্টাব্দে পণ্ডিতদের একটি দল প্রথম অনুমোদিত বাইবেলকে লিখে রাখে, যাতে অন্য প্রধান ধর্ম গুলো বৃদ্ধি পায়। কিন্তু ১৯৫৩ সালে সিরিয়া থেকে বহন করার সময় অর্ধেক পান্ডুলিপি হারিয়ে যায়। একই সময়ে, ডেড সী পাদদেশে মধ্যে একটি প্রাচীন স্ক্রল আবিষ্কৃত হয় ও সাথে সাথে চুরি করা হয়। ছয় দশক পরে, উভয় বিক্ষিপ্তপত্রে বিদেশী সরকার ও চরমপন্থীদের মধ্যে ভূ-রাজনীতিগত যুদ্ধের কেন্দ্রবিন্দুতে দাঁড়িয়ে আসে, লক্ষ লক্ষ মানুষকে হুমকি দেয়। আফগানিস্থানের প্রেসিডেন্ট হামিদ কারজাইয়ের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রবার্ট গিবস বলেন, এফবিআইয়ের সাবেক সহকারী অধ্যাপক কারেন ভেল, বিশেষ বাহিনী জেনারেল সেক্টর ডিসান্টোস এবং এফবিআইয়ের সন্ত্রাসবিষয়ক বিশেষজ্ঞ হারুন উজিয়েল সহ একাধিক প্রশিক্ষিত গোপন সংগঠনের একটি দল মোতায়েন করেছে। মার্কিন মাটির উপর একটি সমন্বিত ও অভিশপ্ত সন্ত্রাসী হামলার নিন্দার জন্য তাদের মিশন: চুরি করা ডকুমেন্টগুলি খুঁজা এবং ক্যাপচার বা হত্যা করা। উপন্যাসটিতে অনেকটা ইতিহাসের বহমান প্রবাহ লক্ষ করা হলেও ভূ-রাজনীতির সাথে মিশে যাওয়া বিভিন্ন কৌশল শিখা যায়। যা অন্য অঞ্চলে অবস্থানরত মানুষের কাছে রহস্য হয়ে দাঁড়ায়।ইতিহাস, অপরাধ ও রহস্যময় এই ভূ-রাজনৈতিক উপন্যাস অনেক পাঠকের মন জয় করেছে।

 সেভেন এনশিয়েন্ট ওয়ান্ডার্স

সেভেন এনশিয়েন্ট ওয়ান্ডার্স

সেভেন এনশিয়েন্ট ওয়ান্ডার্স

অস্টেলিয়ান লেখক ম্যাথিউ রাইলির লেখা সেভেন এনশিয়েন্ট ওয়ান্ডার্স (Seven Ancient Wonders) ২০০৫ সালে প্রকাশিত রহস্য ঘেরা একটি থ্রিলার উপন্যাস। প্রাচীন কালে গিজার গ্রেট পিরামিডের শীর্ষে শোভা পেত সোনার তৈরি অপরূপ একটা ক্ষুদে পিরামিড। বিস্মৃতির অতলে সেটা আজ হারিয়ে গেছে। সারা পৃথিবী থেকে সংগৃহিত এমনি অবাক করা জিনিষের একটি সংগ্রহ সিরেনের ক্যালাম্যাকাসের লিখিত একটি পান্ডুলিপির আদলে সাজানোর চেষ্টা করা হয়েছে এই থ্রিলার উপন্যাসটি। সিরেনের ছিলেন আলেকজান্দ্রিয়ার নাট মন্দিরের প্রধান গ্রন্থাগারিক। খ্রিষ্টপূর্ব ৪৮ সালে গ্রন্থাগারটি ধ্বংস হলে পান্ডুলিপিসহ সব হারিয়ে যায়। লেখক এই সপ্তম আশ্চর্যের সন্ধানে পৃথিবীর বহু দেশ ঘুরে বেড়ান। সুদান, মিশর, আয়ারল্যান্ডসহ অসংখ্য দেশে তার সপ্তম আশ্চর্যের অনুসন্ধানি রহস্যের ঘটনা প্রবাহ দ্বারা উপন্যাসটির বিষয়বস্তু আবর্তন করতে থাকে। ভ্রমন ও রহস্য প্রিয় হলে এই উপন্যাসটি আপনার জন্য।

দ্য মায়ান সিক্রেটস

দ্য মায়ান সিক্রেটস

দ্য মায়ান সিক্রেটস

মার্কিন লেখক ক্লাইভ ক্লাসলার ও টমাস পেরির লেখা দ্য মায়ান সিক্রেটস (The Mayan Secrets) ২০১৩ সালে প্রকাশিত একটি থ্রিলার উপন্যাস। ম্যাক্সিকোতে সাম্প্রতিক কালে উদঘাটিত হয়েছে অতীতের মূল্যবান সব জ্ঞান। যার ফলে ঝুকির মধ্যে পড়তে যাচ্ছে মানুষের ভবিষৎ এর পরিবর্তন। মধ্য আমেরিকায় অবিস্মরণীয় এক আবিষ্কার করে বসেন গুপ্তধন সন্ধানী দম্পতি স্যাম আর রেমি ফারগো। হাতে প্রাচীন, মুখবদ্ধ মৃৎপাত্র ধরা এক নরকঙ্কাল; পাত্রের ভিতরে আছে সুরক্ষিত মায়া আমলের বই। এর আগে এমন কিছু খুঁজে পায় নি প্রত্নত্মাত্ত্বিকরা। মায়ারা তাদের শহর আর পুরো মানবজাতি সম্পর্কে অসাধারণ সব তথ্য লিখে রেখেছে বইটিতে। সিক্রেট গুলো এতটাই শক্তিশালী যে এগুলো পাওয়ার জন্য মরিয়া হয়ে উঠল এক দল। সেই অভিযানেই চললো ফারাগো দম্পতি। অভিযান শেষ হবার আগেই গুপ্তধনের সন্ধানে মারা যাবে বহু নারী পুরুষ। আর এদের মাধ্যে এই দম্পতি থাকার সম্ভাবনাও কম নয়। গাঁ শিরশিরে উঠা রহস্য ও উত্তেজনা ভরপুর এই উপন্যাসটি অদ্বিতীয়। শিহরিত হতে চাইলে পড়ে দেখতে পারেন।

দ্য লস্ট অর্ডার

দ্য লস্ট অর্ডার

দ্য লস্ট অর্ডার

গোল্ডেন সার্কেলের নাইট” আমেরিকান ইতিহাসে সবচেয়ে বড় এবং সবচেয়ে বিপজ্জনক ছদ্মবেশী সংগঠন ছিল। এটি চুরি করা স্বর্ণ ও রৌপ্য মধ্যে কোটি কোটি এমাসেট, সমস্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র জুড়ে গোপনে লুকিয়ে রাখত। ১৮৬৫ সাল থেকে ট্রেজার হেক্টর অনুসন্ধান করেছেন, কিন্তু এই বিশাল সম্পদটি কখনোই পাওয়া যায়নি। এখন, একশো ষাট বছর পর, গোল্ডেন সার্কেলের নাইট অবশেষের দুটি দল চাইছে যে হারিয়ে যাওয়া ধন তাদের নিজের প্রান্তের জন্য এটি ব্যয় করে ও অন্যটি সংরক্ষণের জন্য রেখে দেয়। কেন্দ্রে স্মিথসোনিয়ান ইনস্টিটিউশন-এর সাথে নাইটস, তার ধন এবং মেলোনের সাথে সংযুক্ত, একটি পূর্বপুরুষ, অ্যাঙ্গাস “কটন” অ্যাডামস নামে একটি কনফেডারেট গুপ্তের মাধ্যমে নিজেকে প্রকাশ করে, যার গল্পটি এই উপন্যাসের মূল বিষয়। মার্কিন লেখক স্টিভ বেরি পুরো উপন্যাসটি রহস্য ও রোমাঞ্চে সাজিয়েছে। আমেরিকায় ২০০৭ সালে প্রকাশ হওয়ার পর দ্য লস্ট অর্ডার (The Lost Order) বইটি ব্যপক সাড়া ফেলে।

বি.দ্র: ড্যান ব্রাউন এর লেখা দা ভিঞ্চি কোড বিশ্বের অন্যতম সেরা এবং সবচেয়ে বেশি বিক্রিত বই। তাই দা ভিঞ্চি কোডের তুলনায় এই বইগুলো আপনার কাছে তুলনামূলক ঐ স্বাদের নাও লাগতে পারে।

লেখক: ইমন বর্মণ

data-matched-content-rows-num="2" data-matched-content-columns-num="2"

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *