টপ ৫: সবচেয়ে বেশি ভিটামিন ডি সমৃদ্ধ খাবার

আমাদের দেহের হাড় ভাল রাখতে ভিটামিন ডি এর প্রয়োজনীয়তা অপরিসীম। বিশেষজ্ঞদের মতে, ভিটামিন ডি এর অভাবে শিশুদের দেহের হাড় ঠিকমত বৃদ্ধি পায় না এবং হাড়ের গঠনে বিকৃতি দেখা যায়। এছাড়া ভিটামিন ফ্যাট সলিউবল হওয়ায় অন্ত্র থেকে ক্যালসিয়াম শোষণ করতে পারে এবং আয়রন, ম্যাগনেসিয়াম ও ফসফরাসকেও দ্রবীভূত করতে পারে। আর তাই পুষ্টিবিদরা প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় ভিটামিন ডি সমৃদ্ধ খাবার রাখার পক্ষে জোর দিচ্ছেন।

তবে আমাদের প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় যতটুকু ভিটামিন ডি থাকা প্রয়োজন তা আমরা কিছুক্ষন রোদে দাঁড়ালেই পেতে পারি। এছাড়া দুধও ভিটামিন ডি এর অন্যতম একটি উৎস। তবে শরীরে পর্যাপ্ত রোদ না লাগানোর ফলে ভিটামিন ডি এর অভাব দেখা দিতে পারে। আর শীতকালে তো অনেকসময় চাইলেও শরীরে রোদ লাগানো সম্ভব হয় না। আর তাই ভিটামিন ডি এর অভাব মেটাতে আমাদের ভিটামিন ডি সমৃদ্ধ খাবার খেতে হবে। তো চলুন দেখে নিন সবচেয়ে বেশি ভিটামিন ডি সমৃদ্ধ খাবার গুলো কি কি:

সবচেয়ে বেশি ভিটামিন ডি সমৃদ্ধ খাবার

তৈলাক্ত এবং চর্বিযুক্ত মাছ

স্যামন মাছ
স্যামন মাছ

প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় ভিটামিন ডি এর একটি চমৎকার উৎস হতে পারে তৈলাক্ত এবং চর্বিযুক্ত মাছ। যেমন টুনা মাছ, তরোয়াল মাছ, সার্ডিন মাছ, স্যামন মাছ, পাঙ্গাস মাছ ইত্যাদি। এসব তৈলাক্ত এবং চর্বিযুক্ত মাছের এক টুকরা প্রতিদিন যতটুকু ভিটামিন ডি প্রয়োজন তার ৫০% থেকে ১১৭% পর্যন্ত প্রদান করতে পারে। এছাড়া প্রতি ১৩.৬ গ্রাম বা ১৪.৮ মিলি. কড লিভার অয়েলে দৈনিক ভিটামিন ডি চাহিদার প্রায় ৩৪০% রয়েছে।।

মাশরুম

পোর্টোবেলো মাশরুম
পোর্টোবেলো মাশরুম

যদি কেউ মাছ পছন্দ না করেন কিংবা নিরামিষভোজী হন তবে আপনার জন্য মাশরুম হতে পারে বিকল্প উৎস। কিছু ধরণের মাশরুমে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ডি থাকে। যেমন পোর্টোবেলো মাশরুম (Portobello mushrooms) এর প্রতি ৫০ গ্রামে একজন পূর্ণবয়স্ক মানুষের প্রতিদিন যতটুকু ভিটামিন ডি প্রয়োজন তার ৯৫% পর্যন্ত প্রদান করতে পারে।

ডিমের কুসুম

ডিমের কুসুম
ডিমের কুসুম

ডিমের কুসুমও ভিটামিন ডি এর একটি উৎস হতে পারে। দুটি মুরগির ডিমে একজন পূর্ণবয়স্ক মানুষের প্রতিদিন যতটুকু ভিটামিন ডি প্রয়োজন তার ১৫% পর্যন্ত থাকতে পারে। তবে যাদের উচ্চ রক্তচাপ এবং কোলেস্টেরলের সমস্যা রয়েছে, তাদের ডিমের কুসুম খাওয়ার ক্ষেত্রে সতর্ক থাকতে হবে।

ফর্টিফাইড খাবার

ফর্টিফাইড খাবার
ফর্টিফাইড খাবার

বর্তমানে বাজারের বেশ কিছু ফর্টিফাইড খাবার উৎপাদনকারী তাদের ফর্টিফাইড খাবারে ভিটামিন ডি এবং ক্যালসিয়ামসহ অন্যান্য পুষ্টি উপাদান যোগ করে। যা প্রতিদিনের ভিটামিন ডি এর অন্যতম একটি উৎস হতে পারে। ভিটামিন ডি এবং অন্যান্য পুষ্টি উপাদানযুক্ত খাবারগুলির মধ্যে রয়েছে:

  • গরুর দুধ
  • কমলার জুস
  • সকালের খাবারের বিভিন্ন শস্য

পনির

রিকোটা পনির
রিকোটা পনির

পনির খেতে কে না ভালবাসে? স্যান্ডউইচ, বার্গার, পিত্জা ইত্যাদিতে পনিরের ব্যবহার লক্ষ্য করা যায়। আর প্রতিদিনের ভিটামিন ডি চাহিদা মেটানোর আরেকটি উৎস হতে পারে এই পনির। পনিরের মধ্যে রিকোটা পনিরে ভিটামিন ডি এর পরিমাণ সবচেয়ে বেশি।

এছাড়া গরুর মাংস ও যকৃৎ এবং খাসির মাংস থেকেও অল্প পরিমাণ ভিটামিন ডি পাওয়া যায়। তবে এসব মাংস অতিরিক্ত খাওয়া উচিত না।



error: